NIOS Solved TMA 2023-24

বাংলা ৩০৩
(BENGALI 303)
শিক্ষককৃত মূল্যায়ন পত্র
Tutor Marked Assignment

1. যে কোনো একটি প্রশ্নের উত্তর লিখুন (উত্তর 40-60 শব্দের মধ্যে লিখতে হবে)। (2)

ক) “সে-সময়ে গালিলিয়র ওই রকম যন্ত্র আবিষ্কারের প্রায় কৃতকার্য হয়েছিলেন।” আলোচ্য উক্তিটিতে ‘সে সময়ে’ বলতে কোন সময়ের কথা বলা হয়েছে? ওই রকম যন্ত্র’ বলতে কোন ধরনের যন্ত্রের কথা এখানে উল্লেখ করা হয়েছে?

উত্তর:

উল্লেখিত লাইনটি ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর রচিত “গ্যালিলিও” নামক পাঠের অংশ.

আলোচ্য উক্তিটিতে ‘সে-সময়ে’ বলতে ১৬০৯ খ্রিস্টাব্দের কথা বলা হয়েছে।

 

“ওই রকম যন্ত্র” বলতে দূরবীক্ষণ বা দূরবীন নামক যন্ত্রের কথা এখানে উল্লেখ করা হয়েছে। যা দিয়ে অনেক দূরের জিনিস কাছের বলে মনে হয় ও দেখা যায়।

Read More »

 

2. যে কোনো একটি প্রশ্নের উত্তর লিখুন (উত্তর 40-60 শব্দের মধ্যে লিখতে হবে)। (2)

ক) ‘কাশীরাম দাস’ কবিতাটি কার রচিত? কবিতাটিতে সংস্কৃত হ্রদের সঙ্গে কিসের তুলনা করা হয়েছে?

উত্তর:

“কাশীরাম দাস” কবিতাটি মাইকেল মধুসূদন দত্ত এর লেখা।

কবিতাটিতে সংস্কৃত হ্রদের সঙ্গে মহাদেবের জটা মন্ডলের তুলনা করা হয়েছে।

Read More »

 

3. যে কোনো একটি প্রশ্নের উত্তর লিখুন (উত্তর 40-60 শব্দের মধ্যে লিখতে হবে)। (2)

ক) “এদের ভাষা কাব্যময় ব্রজবুলি”

‘এদের’ বলতে কাদের কথা বলা হয়েছে? ‘ব্রজবুলি’ শব্দটির অর্থ বুঝিয়ে দিন।

উত্তর:

উদ্ধৃতাংশটি উৎপল দত্ত রচিত “নীলকন্ঠ” নাটক থেকে গৃহীত হয়েছে. নাটকে “এদের” বলতে শিউনন্দন  ও মহারাজ  নামক মেথর ধাঙড় নামে পরিচিত শহরের দুই সাফাইকর্মীকে Read More »

4. যে কোনো একটি প্রশ্নের উত্তর লিখুন (উত্তর 100-150 শব্দের মধ্যে লিখতে হবে)। (4)

NIOS TMA 2023-24 Solved Pdf

ক) ভৌগোলিক অবস্থান, স্থানের বৈশিষ্ট্য এবং পর্যটকদের বিশেষ আকর্ষণ অনুযায়ী পর্যটনকে কতগুলি এবং কি কি ভাগে বিভক্ত করা যেতে পারে ?

উত্তর:

ভৌগোলিক অবস্থান , স্থানের বৈশিষ্ট্য , পর্যটকদের বিশেষ আকর্ষণ ও উদ্দেশ্য প্রভৃতি বিবেচনা করে পর্যটনকে কয়েকটি শ্রেণীতে ভাগ করা যায়।

প্রকৃতি পর্যটন : প্রকৃতি পর্যটনকে দু ভাগে ভাগ করা হয়েছে

1.পার্বত্য পাহাড়ি এলাকা  2. উপকূল পর্যটন

 

1.পার্বত্য পাহাড়ি এলাকা:  উত্তরে হিমালয় আর দক্ষিণে নীলগিরি । কম উচ্চতা নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে বিন্ধ্য , সাতপুরা , আরাবল্লি , পশ্চিমঘাট । 100 টা পার্বত্য স্টেশনের মধ্যে 42 টি ছড়িয়ে আছে কুমায়ুন থেকে কাশ্মীর পর্যন্ত. । 15 টি সহাদ্রী পর্বতমালায় আর 12 টি আছে উত্তর – পূর্ব দিকে । বাকি 6 টি ছড়ানো আছে পূর্বঘাট ও আরাবল্লি জুড়ে।

পাহাড় চূড়া যেমন শিমলা দার্জিলিং গ্যাংটক অথবা মুসৌরি প্রভৃতি থেকে বহুদূর অবধি উপত্যকা এবং বরফ ঢাকা পর্বত দেখার অনুভূতি খুব মনোরম. কয়েকটি শৈলাবাস যেমন নৈনিতাল, ওটি, শ্রীনগর, কাশ্মীর প্রভৃতি বিশেষ উপভোগ্য.

এ ছাড়া মাউন্ট আবু, পাঁচমারি, সাতপুরা ,রাচি যেন উটের পিঠের মতো দেখতে চমৎকার।

 

  1. উপকূল পর্যটন: ৭ হাজার কিমি দীর্ঘ উপকূল কান্ডালা থেকে কলকাতা পর্যন্ত প্রসারিত. যেমন গোয়ার সুন্দর উপকূল, কেরালার কোভালাম উপকূল, মুম্বাইয়ের যুহু, চেন্নাইয়ের মেরিনা উপকূল, অন্ধ্রপ্রদেশে দুটো উপকূল ভাইজাক এর কাছে রামকৃষ্ণ মিশন ও ঋষিকন্ডা, Read More »

 

5. যে কোনো একটি প্রশ্নের উত্তর লিখুন (উত্তর 100-150 শব্দের মধ্যে লিখতে হবে)। (4)

ক) উষ্ণ বিশ্বায়নের ফলে প্রতিদিন নতুন নতুন রোগব্যাধি এবং ভাইরাসের আক্রমণে মানবজীবন জর্জরিত হয়ে চলেছে। এ বিষয় সম্পর্কে এলাকার পৌরপ্রধানকে কিছু পদক্ষেপ গ্রহণের অনুপ্রেরণা প্রদান ও প্রয়োজনে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে একটি চিঠি লিখুন।

খ) কোনটি কোন শ্রেণীর শব্দ নির্বাচন করুন। (যে কোনো চারটি) কুৎসিত, কবরেজ, চাঁদ, কিন্ডারগার্ডেন, নৌবহর

 

কুৎসিত= অর্ধ তৎসম শব্দ

কবরেজ =অর্ধ তৎসম শব্দ

চাঁদ =তদ্ভব শব্দ

কিন্ডার গার্ডেন =ইংরেজি শব্দ

নৌবহর =মিশ্র বা Read More »

 

6. যে কোনো একটি প্রশ্নের উত্তর লিখুন (উত্তর 500 শব্দের মধ্যে লিখতে হবে)।(6)

ক) নিচে ঠাকুর পরিবারের একটি সংক্ষিপ্ত পরিচয় দেওয়া হল। এই তথ্যাদি অবলম্বনে একটা বংশতালিকা প্রস্তুত করুন।

দ্বারকানাথ ও দিগম্বরীর পাঁচ পুত্রসন্তান ছিল। দেবেন্দ্রনাথ, নরেন্দ্রনাথ, গিরীন্দ্রনাথ, ভূপেন্দ্রনাথ ও নগেন্দ্রনাথ। দেবেন্দ্রনাথ ও সারদা দেবীর মোট চৌদ্দটি সন্তান সন্ততি। দ্বিজেন্দ্রনাথ, সত্যেন্দ্রনাথ, হেমেন্দ্রনাথ, বীরেন্দ্রনাথ, সৌদামিনী, জ্যোতিরিন্দ্রনাথ, সুকুমারী, পুণ্যেন্দ্রনাথ শরৎকুমারী, স্বর্ণকুমারী, বর্ণকুমারী, সোমেন্দ্রনাথ, রবীন্দ্রনাথ ও বুযেন্দ্রনাথ।

উত্তর:Read More »

খ) নিচের পাঠট পড়ে প্রশ্নগুলির যথাযথ উত্তর দিন।

মাঘ মাস ১৩২৬ সাল। এইমাত্র আরমানি গির্জার ঘড়িতে বেলা এগারোটা বাজিয়াছে। শ্যামবাবু চামড়ার ব্যাগ হাতে ঝুলাইয়া জুডাস লেনের একটি তেতলা বাড়িতে প্রবেশ করলেন। বাড়িটি বহু পুরাতন, ক্রমাগত চুন ও রঙের প্রলেপে লোলচর্ম কলপিত কেশ বুদ্ধের দশা প্রাপ্ত হইয়াছে। নিচের তলায় অন্ধকারময় মালের গুদাম। উপর তলায় সম্মুখভাগে অনেকগুলি ব্যবসায়ীর অফিস পশ্চাতে বিভিন্ন জাতীয় কয়েকটি পরিবার পৃথক পৃথক অংশে বাস করেন। প্রবেশদ্বারের সম্মুখেই তেতলা পর্যন্ত বিস্তৃত কাঠের সিঁড়ি। সিড়ির পাশের দেওয়াল আগাগোড়া তাম্বুলরাগচচিত যদিও নিষেধের নোটিশ লম্বিত আছে। কতিপয় নেংটে ইঁদুর ও আরশোলা পরস্পর অহিংসভাবে স্বচ্ছন্দে ইতস্তত বিচরণ করিতেছে। ইহারা আশ্রম সুখের ন্যায় নিঃশঙ্ক সিঁড়ির যাত্রীগণকে গ্রাহ্য করে না। অন্তরালবর্তী সিন্ধী পরিবারের রান্নাঘর হইতে নির্গত হিং এর তীব্র গন্ধের সহিত নর্দমার গন্ধ মিলিত হইয়া সমস্ত স্থান আমোদিত করিয়াছে। আপিস সমূহের

অবকাশে ব্যবসায়ের চেষ্টা করেন এ বিষয়ে তাঁহার শ্যালক বিপিনই প্রধান সহায়। সম্প্রতি ৬ মাসের ছুটি লইয়া নূতন উদ্দমে ব্রহ্মচারী এন্ড ব্রাদার ইন ল নামে আপিস প্রতিষ্ঠা করিয়াছেন। এই কারবারের স্বত্বাধিকারী স্বয়ং শ্যামবাবু (শ্যামলাল গাঙ্গুলী) এবং তাঁহার শ্যালক বিপিন চৌধুরী বিএস-সি।

অ) শ্যামলাল বাবুর কোম্পানির নাম কি?

আ) বিপিন বাবু কোন ডিগ্রী অর্জন করেছিলেন?

ই) শ্যামলাল বাবুর ব্যবসা সংক্রান্ত অফিস ঘরটি কোন রাস্তায় অবস্থিত ছিল?

ঈ) আলোচ্য অংশে কত রকমের গন্ধের কথা বলা হয়েছে?

উ) কোন কোন প্রাণীর নাম পাঠাংশটিতে পাওয়া যায় তা উল্লেখ করুন?

উত্তর:Read More »

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *